HealthNews

নিউরোব্লাস্টোমার জন্য দায়ী এক নতুন ধরনের কোষ

মাইমুন নাহার

 সম্প্রতি ১ মাস থেকে ৬ বছরের নিউরোব্লাস্টোমায়  আক্রান্ত  শিশুদের নিয়ে এক গবেষণা করা হয়। গবেষণায় ঐ সকল শিশুদের টিউমার টিস্যু সংগ্রহ করা হয় এবং পরবর্তীতে এর মধ্যে প্রায় ৫০% টিউমারকে কম ঝুঁকিপূর্ণ এবং ৫০% কে উচ্চ  ঝুঁকিপূর্ণ বলে আখ্যা দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।    

নিউরোব্লাস্টোমা  স্নায়ুকোষ বা অ্যাড্রিনাল গ্রন্থিতে শুরু হয়। সাধারণত ২ ধরনের নিউরোব্লাস্টোমা দেখা যায়ঃ 

১। কম ঝুঁকিপূর্ণঃএটি সাধারণত ভ্রুন এবং অল্প বয়সের শিশুদের ক্ষেত্রে দেখা যায়।  

২। উচ্চ  ঝুঁকিপূর্ণঃ এটি ৪-৬ বছরের শিশুদের মাঝে দেখা যায়।  

গবেষকরা কম ঝুঁকিপূর্ণ নিউরোব্লাস্টোমাকে এক ধরনের কোষের সাথে মিলাতে সক্ষম হয়েছেন যা ভ্রুনের অ্যাড্রিনাল টিস্যু বিকাশের সময় বৃদ্ধি পায়, অপরদিকে উচ্চ  ঝুঁকিপূর্ণ নিউরোব্লাস্টোমাতে পাওয়া গিয়েছে এমন কোষ যা জন্মের পর শিশুর অ্যাড্রিনাল টিস্যুতে পাওয়া যায়।  

উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত এই টিস্যুর কোষগুলো মূলত একটি স্টেম সেল। এটি পরবর্তীতে বিভিন্ন ধরনের কোষে বিকশিত হতে পারে,  এবং জন্মের পর ক্ষতিগ্রস্থ টিস্যু পুনরুজ্জীবিত করতে পারে কিন্তু স্টেম সেল যখন অস্বাভাবিক বা ক্যান্সারযুক্ত হয় তখন এই কোষগুলোই আক্রমনাত্নক হয়ে উঠে এমনকি নিউরোব্লাস্টোমার জন্যও দায়ী হতে পারে।   

এর ফলেই উচ্চ  ঝুঁকিপূর্ণ নিউরোব্লাস্টোমা অপেক্ষাকৃত বড় ৪-৬ বছরের শিশুদের মাঝে দেখা যায়। ভ্রুন বা খুব ছোট শিশুদের মাঝে দেখা যায় না।  

গবেষকরা জানিয়েছেন যে তারা এখন এটা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন যে জন্মের পর অ্যাড্রিনাল কোষগুলোর পরিবর্তন কিভাবে হয় এবং তা নিউরোব্লাস্টোমার সৃস্টি করে,  আর এই প্রজেনিটর  টিউমার কোষের গঠনের উপর ভিত্তি করে ভবিষ্যতে এর জন্য থেরাপির কৌশল আবিষ্কার করা।  

মাইমুন নাহার

তথ্যসূত্রঃ 

https://www.sciencedaily.com/releases/2021/09/210907160641.htm

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button