Biotechnology

জেনেটিক রোগের নিরাময়ঃ প্রয়োগ হবে CRISPR ফ্রি জিন এডিটিং টুল

বংশ পরম্পরায় বাহিত হওয়া রোগগুলোর জন্য  আমরা বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দায়ী করি নিউক্লিয়ার ডিএনএ তে বহনকারী মিউটেশনকে। কিন্তু জেনেটিক রোগের অন্যতম কারণ হতে পারে মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিএনএ মিউটেশন। কারণ সন্তান তার  জিনোমে বহন করে আনে তার মায়ের মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিএনএ।

জিন এডিটিং টুল হিসেবে CRISPR Cas9 বর্তমান বিশ্বে সর্বাধিক ব্যবহৃত। এই পদ্ধতিতে Cas9 এনজাইমটি RNA strand এর সাহায্যে কাঙ্ক্ষিত জিনে পরিবর্তন সাধন করতে পারে। নিউক্লিয়ার জিন এডিটিং-এ এই পদ্ধতি টি খুবই ফলপ্রসু কিন্তু মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিএনএর ক্ষেত্রে তা নয়।

University of Washington এর একদল বিজ্ঞানীরা  Burkholderia cenocepacia ব্যাকটেরিয়া থেকে DddA নামক একটি এনজাইমের সন্ধান পেয়েছে। এই এনজাইমটি CRISPR Cas9 এর ন্যায় বেইস এডিটিং পদ্ধতি অনুসরণ করে জিনে পরিবর্তন আনতে পারে। এই এনজাইমটি C(cytosine) বেইসের সংস্পর্শে একে U(Uracil) তে রূপান্তর করতে পারে। যেহেতু Uracil বেইস ডিএনএ তে থাকে না কিন্তু তা Thymine বেইস এর মত আচরণ করে, তাই এই ক্ষেত্রে C বেইসটি T তে পরিবর্তন হয়ে যায় এবং এই পদ্ধতিতে Cas9 এনজাইমের ন্যায় double stranded DNA ভাঙার প্রয়োজন হয়না।

মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিএনএ যা কিনা নিউক্লিয়ার ডিএনএর তুলনায় অনেক ছোট, কিন্তু মাইটোকন্ড্রিয়াল ডিএনএ মিউটেশনের কারণে হতে পারে স্নায়ুতন্ত্র ও পেশি সংক্রান্ত বিভিন্ন জটিলতা যা হৃদযন্ত্রের বিকলতাসহ নানা রোগের কারণ হতে পারে।

মানবদেহে প্রয়োগের আগে এই নতুন জিন এডিটিং পদ্ধতির প্রয়োজন আরো অনেক পরিবর্তন সাধন। তবে এই নতুন জিন এডিটিং পদ্ধতি হয়তো ভবিষ্যতে হৃদরোগ এবং মস্তিষ্ক প্রদাহের মত মারাত্মক সব রোগের নিরাময়ে আশার আলো দেখাবে।


ফাহমিদা খানম
জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি বিভাগ
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

তথ্যসূত্রঃ https://www.financialexpress.com/opinion/repairing-mutations-a-new-gene-editing-technique-holds-immense-promise-in-treatment-of-genetic-diseases/2020334/

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button