Medical Science

ব্ল্যাক ডেথের ইতিকথা – ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর মহামারীর সমাপ্তি হয়েছিল কিভাবে?

ফারহান আফ্রিদী

চতুর্দশ শতকের ইউরোপে যে কয়টি রোগ মহামারীর আকারে দেখা দিয়েছিল, “প্লেগ” ছিল তাদের মধ্যে অন্যতম। প্লেগ সাধারণ দুই ধরনের- বিউবোনিক (Bubonic) এবং নিউমোনিক (Pneumonic)। এর মধ্যে নিউমোনিক প্লেগের আক্রমণে রোগীর গাত্রবর্ণ কালো হয়ে যেত, তাই প্লেগ রোগের আরেক নাম ছিল “কালো মৃত্যু” বা “Black Death”।

১৩৪৭ থেকে ১৩৫১ সাল পর্যন্ত প্লেগের এই মহামারীতে ইউরোপ ও মধ্য এশিয়ায় মারা গিয়েছিলেন প্রায় কুড়ি কোটি মানুষ, যা ছিল এই অঞ্চলে বসবাসকারী মানুষদের তিন ভাগের এক ভাগ। এই অঞ্চলের জনসংখ্যা এতটাই কমে গিয়েছিল যে পরবর্তী চারশ বছর লেগেছিল অঞ্চলটিতে আগের জনসংখ্যার সমান জনসংখ্যা।

যদিও মানুষ তখনও জানত না রোগটা প্লেগ এবং এর জন্য দায়ী ইয়ারসেনিয়া পেস্টিস (Yersinia pestis) নামের একটি ব্যাকটেরিয়া। তখন মানুষ এটাও জানত না যে এই রোগ ছড়ানোতে বড় ভূমিকা আছে ইঁদুর ও ইঁদুরের গায়ে থাকা এক ধরনের মাছির। তাদের ধারণা ছিল রোগটি ছড়ায় মিয়াসমা বা বিষ বাষ্পের মাধ্যমে।

চিকিৎসকরা জমে থাকা পুঁজ ও রক্ত বের করে দেওয়ার পাশাপাশি কুসংস্কারাচ্ছন্ন হয়ে আরও  কিছু পদ্ধতিতে চিকিৎসা করতেন। তার মধ্যে রয়েছে  রোগীর পাশে সুগন্ধযুক্ত গুল্ম পোড়ানো ও রোগীকে গোলাপজল বা ভিনেগার দিয়ে গোসল  করানো।

কীভাবে সমাপ্তি ঘটল এই মহামারীর? সবচেয়ে জনপ্রিয় তত্ত্ব অনুযায়ী প্লেগের সমাপ্তি হল কোয়ারানটাইন প্রয়োগের মাধ্যমে অর্থাৎ সংক্রমিতরা নিজ নিজ বাড়িতে থাকা  এবং বিচ্ছিন্নভাবে বসবাস  করার মাধ্যমে।

যদিও এখনো প্লেগ রোগের অস্তিত্ব রয়েছে, তবে অ্যান্টিবায়োটিক দিয়ে  বর্তমানে রোগটি চিকিৎসাযোগ্য। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা না নিলে মানুষ এখনও এই রোগের কারনে মারা যেতে পারে। তাই এই বিষয়ে যথার্থ সচেতনতা খুবই জরুরী।


ফারহান আফ্রিদী

ফার্মেসী বিভাগ

ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি চিটাগং

তথ্যসূত্রঃ

  1. https://www.theweek.co.uk/76088/what-was-black-death-and-how-did-it-end
  2. https://allthatsinteresting.com/how-did-the-black-plague-end
  3. https://bigthink.com/surprising-science/what-ended-the-black-death-historys-worst-pandemic

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button